Web bengali.cri.cn   
১১ নভেম্বর 'বিশ্ব কেনাকাটা দিবসে' চীনা শিল্পপ্রতিষ্ঠানের নতুন রেকর্ড
  2019-11-12 15:29:05  cri

'বিশ্ব কেনাকাটা দিবস' গতকাল (সোমবার) উদযাপিত হয়। এদিন মধ্যরাত ১২টার পর চীনের ক্রেতারা প্রচুর কেনাকাটা করেছেন। বিশেষ করে চীনের কয়েকটি বড় শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে 'থিয়ান মাও' প্ল্যাটফর্মে বিক্রি হয়েছে ২৬৮.৪ বিলিয়ন ইউয়ান মূল্যের পণ্য; যা একটি নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। 'চিংতুং' ২০০ বিলিয়ন ইউয়ানের পণ্য বিক্রি করেছে, 'সুনিং' চ্যানেলের মাধ্যমে বুকিংয়ের পরিমাণ গত বছরের তুলনায় ৭৬ শতাংশ বেশি হয়েছে। ফাইভজি মোবাইল ফোন বিক্রির পরিমাণ ৪৫৯ শতাংশ বেশি হয়েছে। 'ফিন তুও তুও' প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে দরিদ্র অঞ্চলে কৃষি পণ্য বিক্রি হয়েছে ২২০ শতাংশেরও বেশি। আজকের সংবাদ পর্যালোচনায় আমি এ বিষয়েই আলোচনা করবো।

সংবাদদাতাদের সাক্ষাত্কারে চীনের অধিবাসীরা বলেন, প্রতিবছর '১১ নভেম্বর' হচ্ছে তাদের কেনাকাটার সবচেয়ে ব্যস্ত সময়। এদিনে সবাই অনেক জিনিস কিনে থাকেন। আমরা জানি, '১১ নভেম্বর' কেনাকাটায় অনেক ছাড় দেওয়া হয়। একজন অধিবাসী বলেন, তারা প্রতিদিন গড়ে ৬৮ ইউয়ান খরচ করেন। '১১ নভেম্বর' সেই জিনিস ৪৭ ইউয়ানে পাওয়া যায়! ছাড়ের পরিমাণও অনেক বেশি থাকে। লজিস্টিক খাতের সংশ্লিষ্ট কর্মীরা দিন-রাত দায়িত্ব পালন করেন। এটি '১১ নভেম্বর' সংশ্লিষ্ট পণ্য কেনাবেচায় দারুণ সুবিধা দিয়েছে।

'১১ নভেম্বর' চীনে অনলাইন কেনাকাটা দিবস। এ দিবসের প্রতিষ্ঠাতা আলিবাবা গোষ্ঠীর 'থিয়ান মাও' শাখার লেনদেনের ওপর দৃষ্টি রেখেছে বিভিন্ন মহল। ১১ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট ৫৯ সেকেন্ডে 'থিয়ান মাও' ২৬৮.৪ বিলিয়ন ইউয়ান মূল্যের পণ্য বিক্রির নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। পরিসংখ্যানে বলা হয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পণ্য জনপ্রিয় হয়েছে। এর মধ্যে জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও জার্মানির পণ্য বিক্রি হয়েছে।

এখানে আরও একটি বিষয় উল্লেখযোগ্য। যেমন, লাজাদা (lazada) প্লাটফর্ম। এই প্ল্যাটফর্ম থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ায় অনেক জনপ্রিয় হয়। এটি দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ায় সর্বোচ্চ ইলেক্ট্রনিক ব্যবসার প্ল্যাটফর্ম। চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা গবেষণালয়ের গবেষক চৌ মি বলেন, এবারের '১১ নভেম্বর' কেনাকাটা দিবসে বৈদেশিক বাজারের বহুমুখী উন্নয়ন প্রবণতা দেখা দিয়েছে। এ সম্পর্কে তিনি বলেন,

'বৈদেশিক বাণিজ্যের বিনিময়ে ব্রিটেনসহ অনেক দেশের উন্নয়নের গতি দ্রুত হয়েছে। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডের প্রবৃদ্ধির হার অস্ট্রেলিয়াকে ছাড়িয়ে গেছে। এ থেকে স্পষ্ট যে, আমাদের বৈদেশিক বাণিজ্য খাতে বিশেষ করে আন্তঃদেশীয় ইলেক্ট্রনিক ও ব্যবসায়িক চ্যানেলের মাধ্যমে চালানো বিশ্ব বাণিজ্যের বিনিময়ে কিছু পরিবর্তন ঘটেছে'।

বিদেশি বাজারের পাশাপাশি, '১১ নভেম্বর' কেনাকাটা দিবসের মাধ্যমে চীনা জনগণের কেনার সামর্থ্য বৃদ্ধির বিষয়টিও ফুটে উঠেছে। 'চিংতুং' এই প্ল্যাটফর্ম থেকে দেখা যায়, টেলিভিশন কেনার পরিমাণ আগের চেয়ে অনেকে বেড়েছে। কৃত্রিম বুদ্ধি ও নতুন আকারের প্রযুক্তির ব্যবহার বেশি হয়েছে। গত ১ থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত, 'চিংতুং' প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ৭০ ইঞ্চি ও এর চেয়ে বড় পণ্য বিক্রির পরিমাণ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪০০ শতাংশ বেশি হয়েছে। এর মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিযুক্ত টেলিভিশন বিক্রি হয়েছে ৮৫ শতাংশ।

তা ছাড়া, 'সুনিং' ও 'ফিন তুও তুও' সংশ্লিষ্ট প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিক্রির পরিমাণও অনেক বেড়েছে। 'ফিন তুও তুও' সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, তাঁরা ৪৮ কোটি ভোক্তাকে সেবা দিয়েছে। পাশাপাশি, দরিদ্র অঞ্চলের কৃষি পণ্য বিক্রির হারও ২২০ শতাংশ বেশি হয়েছে।

চীনের অনলাইন কেনাকাটার পরিমাণ অব্যাহতভাবে স্থিতিশীল প্রবৃদ্ধি বজায় রেখেছে। চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যানে বলা হয়, এ বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে গোটা চীনে ইন্টারনেটে খুচরা বিক্রির পরিমাণ হয়েছে ৭.৩২ ট্রিলিয়ন ইউয়ান, যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৬.৮ শতাংশ বেশি।

(ওয়াং হাইমান/তৌহিদ/তুহিনা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040