বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে জীববৈচিত্র্য রক্ষায় কাজ করতে চায়: বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত
2021-10-13 20:23:40

বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে জীববৈচিত্র্য রক্ষায় কাজ করতে চায়: বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত_fororder_ㄏ

অক্টোবর ১৩: বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে জীববৈচিত্র্য রক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আরও বেশি সহযোগিতা চালানোর প্রত্যাশা করে। জীববৈচিত্র্য রক্ষায় বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয়, বহুপক্ষীয় ও আন্তর্জাতিক ইস্যুতে চীনের সঙ্গে কাজ করতে চায়।

চীনের ইউননান প্রদেশের খুনমিং শহরে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের ‘জীববৈচিত্র্য কনভেনশনের’ ১৫তম শীর্ষসম্মেলনে অংশ নিয়ে গতকাল (মঙ্গলবার) চীনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাহবুব উজ জামান সিএমজি’র সাংবাদিককে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে একথা বলেছেন।

উন্নয়নশীল দেশগুলোর জীববৈচিত্র্য খাত রক্ষায় চীন প্রথমে ১৫০ কোটি ইউয়ান বরাদ্দ দিয়ে খুনমিং জীববৈচিত্র্য তহবিল প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে। প্রেসিডেন্ট সি’র এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত।

সাক্ষাত্কারে রাষ্ট্রদূত মাহবুব উজ জামান প্রেসিডেন্ট সি’র প্রস্তাবিত প্রাকৃতিক সভ্যতার চিন্তাধারার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেন, আমরা দেখেছি, আগে সব সমৃদ্ধ সভ্যতা প্রকৃতির সঙ্গে নিখুঁতভাবে সহাবস্থান করছিলো। বাংলাদেশ প্রেসিডেন্ট সি’র প্রাকৃতিক সভ্যতার চিন্তাধারাকে সমর্থন করে। চীন জাতীয় উদ্যানসহ প্রাকৃতিক ‘প্রকৃতি সংরক্ষণ ব্যবস্থাপনা’ নির্মাণকাজ দ্রুততর করছে। তা ছাড়া, সবাইকে সবুজ উন্নয়নের ফলাফল ভাগাভাগি করে দেওয়ার জন্য ‘সবুজ আন্তর্জাতিক সহযোগিতার’ ওপরও গুরুত্ব দিয়েছে চীন। চীন কার্বন নির্গমনের সর্বোচ্চ পরিমাণ এবং কার্বন নিরপেক্ষতার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। চীন এতে ধারাবাহিক সংস্কার অভিযান চালানোর প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে। বাংলাদেশেও অনেক প্রাকৃতিক উদ্যান ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের প্রকল্পও আছে। তবে, এতে ব্যাপক পুঁজির সংকট রয়েছে। তাই বাংলাদেশের আরও বেশি সহায়ক ব্যবস্থার প্রয়োজন বলে তিনি উল্লেখ করেন। বহুমাত্রিক সহযোগিতার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে হাতে হাত রেখে মানবজাতির অভিন্ন বাসস্থান বা এই পৃথিবী রক্ষা করা সম্ভব হবে। এই খাতে চীন সর্বপ্রথম বহুপক্ষীয় সহযোগিতা চালানোয় আমরা খুব আনন্দিত। জাতিসংঘের ‘জীববৈচিত্র্য কনভেনশনের’ ১৫তম শীর্ষসম্মেলন আয়োজন একটি বড় ধাপ বলেও মনে করেন তিনি।

(লিলি/তৌহিদ/শুয়েই)