Web bengali.cri.cn   
চীন ও ভারতের চা সংস্কৃতি
  2013-12-18 12:40:49  cri


চীনাদের জন্য চা দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় একটি জিনিস এবং চীনা মানুষ অতীতকাল থেকে চা খায় বলে চীনকে চার জন্মস্থান বলে আখ্যায়িত করা হয়। তিন হাজার বছর আগে চীনা মানুষেরা বুনো চাগাছের চাষ করতো এবং পরে চাপাতা তোলা ও তৈরি করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা করে চীনারা। এর পাশাপাশি, চা খাওয়া ও আধানের নীতি ভিন্ন বলে চা আধান একটি শিল্পে পরিণত হয়। চা খাওয়ার পরিবেশ ও শিষ্টাচারও এ শিল্পে সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট যোগ করে।

হাজার হাজার বছরে চীনের চা একটি পণ্য এবং সাংস্কৃতিক প্রতীক হিসেবে বিশ্বকে প্রাচীন প্রাচ্যের সংস্কৃতি প্রদর্শন করে। রেশমপথের সূচনা বা চেং হের পশ্চিম অভিমুখে সমুদ্রযাত্রা কিংবা সন্নাসী চেন চিন পূর্ব অভিমুখে সমুদ্রযাত্রা íV যাই হোক না কেন, বৈদেশিক বিনিময়ে চা ও চীনামাটি সমান গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী। চার প্রভাবে বিভিন্ন অঞ্চল ও সংস্কৃতির মধ্যে বিনিময় গভীর হয় এবং বিভিন্ন অঞ্চলের সাংস্কৃতিক ব্যবস্থার সঙ্গে মিলে বৈশিষ্ট্যময় আঞ্চলিক চা সংস্কৃতির জন্ম হয়।

চীনে চা খাওয়ার গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হচ্ছে নমুনা। ফুটানো বিশুদ্ধ পানি দিয়ে চা আধান করে এর মূল স্বাদ উপভোগ করা চীনা চা নমুনার বৈশিষ্ট্য। চার মান নমুনা ছাড়া, চা খাওয়ার আবেদনও খুব মজার। শান্ত পরিবেশে এক কাপ চা খেলে ক্লান্তি দূর হয়। মনে শান্তি আনে বলে সংস্কৃতি ও ধর্মের সঙ্গে চায়ের যোগসূত্র আছে।

চীন ও জাপানে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সংখ্যা বেশি এবং জেন্ ও চার সঙ্গে নানা রকমের সম্পর্ক আছে। জেন্ চীনা চা সংস্কৃতির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। জেন্ একটি রাজত্ব এবং মনের শান্তি অন্বেষণের একটি প্রক্রিয়া। চা প্রকৃতির উপহার এবং এটা খাওয়া মানে প্রাকৃতিক নীতি অনুযায়ী চার মূল স্বাদ আবিষ্কার করা এবং জেন্ মানে মূল জ্ঞানকে অনুসন্ধান, চা খাওয়ার সঙ্গে যার অনেক মিল আছে। জেন্ ও চা সংস্কৃতি চীনা ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতির ইতিহাসে একটি অদ্বিতীয় লক্ষণ এবং বিশ্ব সংস্কৃতিতে চীনের একটি অবদান। জেন্ ও চা ভিন্ন দুটি সংস্কৃতি, তবে দীর্ঘ সময় ও ইতিহাসের উন্নয়নে দু সংস্কৃতি পরস্পরের ওপর প্রভাব ফেলে এবং শেষে একটি বিশেষ সংস্কৃতিতে পরিণত হয়।

খ্রিষ্টপূর্ব ৫২ অব্দে উ লি চেন সিছুয়ান প্রদেশের মেং তিং পাহাড়ে ৭টি চা গাছ চাষ করেছিলেন এবং তিনিই হলেন প্রথম মানুষ, যিনি কৃত্রিম উপায়ে চা চাষ করেন। সেকারণে মানুষ তাকে চার পূর্বপুরুষ বলে আখ্যায়িত করে। খ্রিষ্টপূর্ব ৪ অব্দে বৌদ্ধধর্ম চীনে আসে এবং উ লি চেন মেং তিং পাহাড়ে তপস্যা করেন এবং চা সংস্কৃতিকে বৌদ্ধধর্মে যোগ করেন।

থাং রাজিবংশের আমলে বৌদ্ধমন্দির পোষ্য হিসেবে গ্রহণ করে লু ইউয়ুন নামের একটি ৩ বছর বয়সী শিশুকে, যে ছোটবেলা থেকে চা তুলতো ও তৈরি করতো। পরে তিনি 'চা'নামে একটি বই রচনা করেন। বইয়ে চার ইতিহাস, চাষ ও তৈরির উপায় এবং চায়ের বাসনকোসন ও চা খাওয়ার প্রথাসহ বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। বৌদ্ধধর্ম ও চা íV এ দুই বিষয়ে লু ইউয়ুনের তপস্যা উচ্চ পর্যায়ে পৌঁছায় বলে মানুষ তাকে চার ঋষি বলে অভিহিত করে।

1 2
সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদন
মন্তব্য
লিঙ্ক