Web bengali.cri.cn   
সুরের ধারায়: তোমার ওখানে কি তুষার পড়েছে?
  2015-11-09 21:19:09  cri


এ কয়েক দিন পেইচিংয়ে তুষারপাত ও বৃষ্টি পড়ে তাপমাত্রা দ্রুত নিচের দিকে নেমেছে। ভীষণ শীত পড়ে গেছে। এখন সবাই শীতের কাপড় পড়ে বাইরে বের হন। এখন আমরা কারো সঙ্গে দেখা হলে, পরস্পরকে বলি, বেশ ঠাণ্ডা পড়েছে। তাই আজকের এ আসরে আপনাদের শীতকাল ও বরফ সম্পর্কিত কয়েকটি গান শোনাবো।

প্রিয় বন্ধুরা, আপনাদের ওখানে তুষার পড়েছে? আপনারা কি কখনো তুষারপাত দেখেছেন? আপনারা তুষারপাত দেখতে পছন্দ করেন কি?

প্রিয় শ্রোতা, এখন আপনারা শুনছেন 'তোমার ওখানে তুষার পড়েছে' শিরোনামে একটি গান। গেয়েছেন মেং টিং ওয়েই। গানে বলা হয়েছে, 'তোমার ওখানে তুষার পড়েছে? শীত এসে গেছে দেখে তোমার ভয় লাগছে? চুলার আগুনে হাত উষ্ণ করা যায়। স্নিগ্ধ হাসিতে তোমার হৃদয় জয় করা যায়। আমি তোমার জন্য তুষার কণা রেখে দিবো?'

প্রিয় বন্ধুরা, গত ৬ নভেম্বর পেইচিংয়ে এবারের শীতে প্রথম তুষারপাত হয়েছে। ভোরে জানালা খুলে আমি দেখেছি, বাইরে রাস্তা, গাছপালা, গাড়ি, অন্যান্য ভবনের ছাদ সবই শ্রভ্র-সাদা তুষারে ঢেকে রয়েছে। সে কি মনোরম দৃশ্য। এ দৃশ্য দেখে হান শুয়ের গাওয়া 'তুষার' নামের গানটি মনে পড়ে গেছে আমার। একবার এক সাক্ষাত্কারে হান শুয়ে বলেছিলেন, 'আমি এ গানটি খুব পছন্দ করি। গানটিতে ছবির মতো দৃশ্য বর্ণিত হয়েছে। সে দৃশ্য আমার মন স্পর্শ করে যায়। তাহলে শুনুন বন্ধুরা, 'তুষার' নামের গানটি।

এ গানে বলা হয়েছে, 'আকাশ থেকে তুষার ঝরছে। উষ্ণপ্রস্রবণে আমি একাকীবোধ করছি। পাতারা গাছ থেকে ঝরে পড়ে যাচ্ছে, ঠিক আমাদের সম্পর্কের মতো। এটা আমাদের সম্পর্কের অবসান। অতীতে তুমি আমার কাঁধে হাত রেখে আলিঙ্গন করতে। আমাকে বলতে, আমাকে চিরকাল ভালোবাসবে। তুষার যেন ফুলের মতো ফুঁটেছিল। এখন বাতাসের মধ্যে কেবল আমি আছি। আমার চুল এলোমেলো হয়ে আছে। কেন যে আমার চোখের জল ঝরতে থাকে! থামতে পারি না। আকাশ থেকে পেজা তুলোর মত তুষার ঝরছে।'

বন্ধুরা, আপনারা কখনো তুষারপাত দেখেছেন? বাংলাদেশ তো গরম জায়গা। শীতকালে তুষার পড়ে না। ঠিক দক্ষিণ চীনের মতো। দক্ষিণ চীনের লোকেরা উত্তর চীনের শীতকালের তুষার পড়ার দৃশ্য দেখতে খুব পছন্দ করে। তুষারপাত দেখতে ঠিক যেন রূপকথার মতো। তুষার পড়ার সময় শব্দ হয় কি? তা জানার জন্য একটি গান শুনুন। এ গানের নাম 'তুষার পড়ার শব্দ'। গেয়েছেন থান ওয়েই ওয়েই।

এ গানে বলা হয়েছে, 'ফেব্রুয়ারির তুষার যেন বিদায়ের মতো। যখন আমরা এ রাস্তায় হাঁটি, তখন তোমার মুখ দেখতে পাই। অতি সুন্দর। শুভ্র-সাদা দিন। তোমার মুখের চিরস্থায়ী প্রতিচ্ছবি কোথায় গেলো। আমি আর দেখতে পাচ্ছি না। প্রেম বিপর্যয়ের মতো আমার বিশ্বকে ধ্বংস করেছে। ফেব্রুয়ারি মাসের তুষার সারা রাত ঝরেছে। এই শীতে আমি একা। আমি তোমাকে খু�� মিস করছি। আমার মুখের ভাষা হারিয়ে গেছে'।

সুপ্রিয় শ্রোতা, ঘন তুষার পড়ার পর মাটিতে তা জমে থাকে দীর্ঘ সময়। তুষারজুতা পড়ে তুষারের ওপর হাঁটলে তখন সত্যি সত্যি এক ধরনের আওয়াজ হয়। এটা বাচ্চাদের প্রিয় খেলা। আমি দেখেছি, পেইচিংয়ে তুষার পড়ার পর রাস্তায় থাকা গাড়িগুলোর গায়ে অনেকে মজা করে নানা রকম ছবি আঁকে। কেউ কেউ নানা শব্দও লেখে। এটাও এক ধরনের খেলা। শীতকাল মানে কেবল শীতলতা ও একাকীবোধ নয়। অনেক মজাও পাওয়া যায়। বন্ধুরা, এবার শুনুন 'দুজনের তুষারদিন' নামের একটি গান। গেয়েছেন তাইওয়ানের গায়িকা সুই হুই সিন।

এ গানে বলা হয়েছে, 'ডিসেম্বর মাসের শেষ কয়েক দিন, এক টুকরো বরফও নেই। আমার আর তোমার প্রায় এক বছর ধরে দেখা হয়নি। বড়ো দিনের আগের দিন বেতারে সংগীত প্রচারিত হয়। আমি জানি, এমন তুষার ঝরার দিনে আমার মনের গভীর তুষারপাত কেউ দেখতে পায় না। কেবল আমিই জানি।'

বন্ধুরা, কখনো তুষারমানব দেখেছেন? ছোটবেলায় তুষার পড়লে আমি মোটা পোশাক পড়ে, হাতে মোটা মোজা পড়ে বাইরে গিয়ে বরফ দেখতাম। তখন এক বিশেষ মজা ছিলো। তুষারমানব বানাতাম আমরা। তুষারমানব বানাতে হলে প্রথমে একটি তুষারবল তৈরি করতে হয়। তারপর সেটা পড়ে থাকা তুষারের ওপর রোল করে বড় করতে হয়। এভাবে বড় ছোট দুটি তুষারবল বানানোর পর তুষারমানবের আকার তৈরি করা হয়। তুষারমানবের একটি টুপি লাগবে। গাজর দিয়ে তার নাক বানাতে হয়। কালো বল দিয়ে তার দুটি চোখ বানাতে হয়। হয়তো অবশেষে নিজের রুমালও তার গলায় বেঁধে দিবে হয়। এভাবে এক লাবণ্যময় দৃষ্টিনন্দন তুষারমানব তৈরি হয়ে যায়।

1 2
মন্তব্য
Play
Stop
ওয়েবরেডিও
বিশেষ আয়োজন
অনলাইন জরিপ
লিঙ্ক
© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040