Web bengali.cri.cn   
চীন-ক্রোয়েশিয়া জ্যাজ (জ্যাজ) সংগীত সহযোগিতা
  2015-12-15 13:54:16  cri
বন্ধুরা, 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' বিষয়ক অনুষ্ঠানে আপনাদের সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি। এ অনুষ্ঠানে আপনারা বিভিন্ন ছোট গল্প, আধুনিক ও প্রাচীন কবিতা, সাহিত্যিকের জীবনী ও তাদের কর্ম, উপন্যাস, নাটক- এক কথায় সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন। তাহলে শুরু করা যাক, আজকের 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' বিষয়ক অনুষ্ঠান।

প্রথমে একটি সাংস্কৃতিক খবর শুনবো।

চলতি বছর চীন-বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৪০তম বার্ষিকী। আবার চীন-যুক্তরাষ্ট্র কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৩৬তম বার্ষিকী। এজন্য যুক্তরাষ্ট্রের হুস্টোনে (Houston)-এ ৫ ডিসেম্বর এক ছবি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

হুস্টোনে সিনহুয়া বার্তা সংস্থার শাখা এ ছবি প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে, হুস্টোনে চীনের কনস্যুলেট জেনারেল এতে সহায়তা দিয়েছে। প্রদর্শনীতে ৩০টি ছবির মাধ্যমে দু'দেশের নেতাদের এবং বিখ্যাত ব্যক্তিদের বন্ধুত্বপূর্ণ বিনিময় ফুটে উঠেছে।

হুস্টোনে চীনের কনস্যুলেট জেনারেলের কন্সুলার জেনারেল লি মিন ছিয়াং প্রদর্শনীতে বলেন, এটি শুধু ছবি প্রদর্শনীই নয় বরং দু'দেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি একটি মুহূর্ত এবং ঘটনা। দু'দেশের উচিত ইতিহাস থেকে অভিজ্ঞতা ও শিক্ষা নেওয়া, যাতে দু'দেশের সম্পর্ক আরো উন্নত হয়।

বন্ধুরা এবার শুনুন চীন-ক্রোয়েশিয়া জ্যাজ (জ্যাজ) সংগীত সহযোগিতা বিষয়ক একটি প্রবন্ধ। আশা করি বন্ধুরা তা পছন্দ করবেন।

জ্যাজ, চীনা মানুষের মনে এটি বিদেশের সংগীতের স্বাদ তুলে ধরে। কিন্তু, যদি জ্যাজ-এ চীনের উপাদান যোগ করা হয়, তাহলে তা কেমন লাগবে ? চীনের জাতীয় লাইব্রেরির সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত একটি চীনা অরিজিনাল (original) সংগীত অনুষ্ঠানে প্রাচ্য শিল্পীরা pipa- 4-stringed Chinese lute নিয়ে জ্যাজ সংগীত পরিবেশন করেছেন। আর দর্শকরা এটা বেশ পছন্দ করেছেন। এমনকি তারা ছন্দের সঙ্গে সঙ্গে নেচেছেন। সাড়ে তিন ঘণ্টার পারফর্মেন্সে সারা হল মুখরিত হয়ে ওঠে। প্রচুর হাততালি পড়ে চারদিকে।

পারফর্মেন্স শেষে আমরা জনসমাগমে চীন-পূর্ব ইউরোপের জ্যাজ সংগীত অনুষ্ঠানের প্রধান তত্ত্বাবধায়ক ক্রোয়েশিয়ার দাভোর রাভোজ (Davor Hrvoj)কে দেখেছি। তার সঙ্গে অনেক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব চীন সফরে এসেছেন।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে দাভোর 'ব্রাভো, ব্রাভো' বলে উল্লসিত হয়ে ওঠেন। তিনি বলেন, "আজকের সংগীত অনুষ্ঠানটি অনেক চমত্কার হয়েছে। তাদের পারফর্মেন্স বিশ্বের মধ্যে শ্রেষ্ঠ। প্রতিটি সংগীত আমি পছন্দ করেছি, বিশেষ করে চীনা বাদ্যযন্ত্র দিয়ে বাজানো সংগীতগুলো। খুব ভালো, খুব ভালো।"

আমি বন্ধুদের সঙ্গে এই গুণী শিল্পী দাভোর রাজোকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি। তিনি ক্রোয়েশিয়ার জ্যাজ সংগীত মহলের বিখ্যাত একজন মানুষ। তিনি ক্রোয়েশিয়ার জাতীয় টেলিভিশনের জ্যাজ সংগীত চ্যানেলের প্রধান তত্ত্বাবধায়ক, ক্রোয়েশিয়ার জ্যাজ সংগীত ওয়েবসাইটের সাধারণ সম্পাদক, ইউরোপীয় জ্যাজ সংগীত পুরস্কার আন্তর্জাতিক বিচারক দলের সদস্য, তিনটি জ্যাজ সংগীত শিল্পীর ধারাবাহিক অ্যালবামের লেখক, ক্রোয়েশিয়ার জাগ্রেব জ্যাজ সংগীত ক্লাবের প্রধান তত্ত্বাবধায়ক।

এবার সংগীত কন্সার্ট হলো চীন-পূর্ব ইউরোপ জ্যাজ সংগীত দিবসের তত্ত্বাবধায়ক দলের সফরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। চীনের ঐতিহ্যিক জ্যাজ ও নবোদিত সংগীত সংস্থা পূর্ব ইউরোপের ১৬টি দেশের জ্যাজ সংগীত দলকে চীন সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছ।

সফরে এ দলটি জ্যাজ সংগীত মহা তত্ত্বাবধায়ক দল পেইচিং, সাংহাই ও কুয়াং চৌ তিনটি শহরে গিয়েছে। ধারাবাহিক সংগীত বিষয়ক ফোরামে অংশ নিয়েছে, চীনের সংগীত পাফর্ম্যান্স দেখেছে এবং অনেক সংগীত সাংস্কৃতিক তত্পরতায় যোগ দিয়েছে।

কয়েক বছর আগে ক্রোয়েশিয়ার রাজধানী জাগ্রেবে দাভোর প্রথম চীনা জ্যাজ সংগীত শুনেছেন। যা তার মনে গভীর ছাপ ফেলেছে। তখন দু'দেশের জ্যাজ সংগীত মহলের বিনিময়ের সুযোগ অনেক কম ছিল। কিন্তু এবারের সফরে দু'পক্ষের জন্য নতুন একটি সংগীত জগতের দরজা খুলে গেছে।

এবার সফরে দাভোর একটি কাজ করেছেন, সেটি হলো চীন-ক্রোয়েশিয়া জ্যাজ সংগীত শিল্পীদের বিনিময় প্রকল্প। তিনি বলেন, "এ প্রকল্প খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমার কাছে অনেক ক্রোয়েশীয় শিল্পীর সিডি ও সংশ্লিষ্ট প্রতিবে��ন আছে। তারাও আমার সঙ্গে চীনে এসেছে। আশা করি চীনা বন্ধুরা এসব শুনবে এবং পছন্দ করবে।"তিনি আশা করেন অনেক চীনা জ্যাজ সংগীত সিডি ক্রোয়েশিয়ায় নিয়ে যেতে পারবেন। এবার পারফর্মেন্স ও সফরের মাধ্যমে তার সে আস্থা তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, "এত দীর্ঘ দিন অপেক্ষা, এত মানুষের প্রচেষ্টার পর এ সুযোগ তৈরি হয়েছে। আশা করি দু'দেশের জ্যাজ সংগীত জগতে আরো ঘনিষ্ঠ বিনিময় হবে। আমার দেশের সেরা জ্যাজ শিল্পীরা চীনে এসেছে, আমরাও চীনা জ্যাজ শিল্পীদের ক্রোয়েশিয়া নিয়ে যাবো।"

প্রিয় শ্রোতা, আজকের অনুষ্ঠান আপনাদের কেমন লাগলো? আপনারা যদি 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' বিষয়ক কোনো কিছু জানতে বা আলোচনা করতে চান, তাহলে আমাকে চিঠি লিখবেন বা ই-মেইল করবেন। আপনাদের কাছ থেকে চমৎকার পরামর্শ আশা করছি। আর আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, আমার ইমেইল ঠিকানা হলো, hawaiicoffee@163.com।

চিঠিতে প্রথমে লিখবেন, 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' অনুষ্ঠানের 'প্রস্তাব বা মতামত'। আপনাদের চিঠির অপেক্ষায় রইলাম।

শ্রোতাবন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান এখানেই শেষ করছি। অনুষ্ঠান শোনার জন্য অনেক ধন্যবাদ। আগামী সপ্তাহে একই দিন, একই সময় আপনাদের সঙ্গে আবারো কথা হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। চাই চিয়ান (জিনিয়া/তৌহিদ)

সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদন
মন্তব্য
Play
Stop
ওয়েবরেডিও
বিশেষ আয়োজন
অনলাইন জরিপ
লিঙ্ক
© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040